মুড়ি বিক্রায় করে সংসার চালাছে হরিপুর

0
84
মুড়ি বিক্রায় করে সংসার চালাছে হরিপুর
মুড়ি বিক্রায় করে সংসার চালাছে হরিপুর

রমজান মাসে ইফতার করার সময় মুড়ি কোনো কল্পনাই করা যায় না ।আমাদের ইফতার করার সময় হাতে ভাজা মুড়ির স্বাদ অনেক সুন্দর হয় । আর বাজারে কারখানা যে সব মুড়ি পাওয়া যায় সেই গুলো মুড়ির কোনো প্রাকারের স্বাদ পাওয়া যায় না । আর হাতে ভাজা গরম মুড়ি খেতে অন্য রোকম স্বাদ পাওয়া যায় ।

আর বিশেষ করে হাতে ভাজা মুড়ি রমজান মাসে বেশি চাহিদা কয়েক গুণ বেশি থাকে । মুখের স্বাদের জন্য সবাই বাজারে এসে হাতে ভাজা মুড়ি খোজে ।হরিপুর গ্রামে তাহের উদ্দিন বলেন ।যদি মুড়ির মান ভালো হয় তাহলে সেই মুড়ি বাজারে ভালো চলে ।আর আমরা সারা বছর মুড়ি তৈরী করে বাজারে বিক্রায় করে থাকি ।

আর রোজার মাসে যে মুড়ি সেল করি দেখা যায় যে সারা বছর সেই সেল হয় না । তাই আমরা রোজার মাসে মান সম্মনত মুড়ি তৈরী করে থাকি । তাহের উদ্দিন বলেন যে , এক কেজি চালে ৯৫০ গ্রাম মুড়ি হয় ।তাহের উদ্দিন বলেন যে , আমাদের কষ্ট অনেক বেশি হয় । সংসার চালানার জন্য কষ্ট করতে হয় । তবে অন্য মাসে চাহিদা তেমন না থাকা অনেকেই মুড়ি ভাজার কাজ ছেড়ে । দিয়েছেন। অন্য পেশায় চলে যাচ্ছেন।

রাজধানী ঢাকাতে চালকের দিন দিন মনোযোগ কমার কারনে বাড়ছে সমস্যায়

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here